মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

১. ৩২.৫ মিলিয়ন নিরক্ষরকে সাক্ষরতা প্রদান;

২. বিদ্যালয় বর্হিভূত ৮-১৪ বয়সী শিশুদের জন্য শিক্ষা দ্বিতীয় সুযোগ প্রদানের লক্ষ্যে উপানুষ্ঠানিক প্রাথমিক শিক্ষা কর্মসূচি বাস্তবায়ন;

৩. ৫ মিলিয়ন নব্যসাক্ষরকে দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রদান;

৪. প্রতিটি ইউনিয়নে কমপক্ষে ১টি করে কমিউনিটি লার্ণিং সেন্টার(সিএলসি) স্থাপন এবং

৫. জেলা পর্যায়ে উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন।

ছবি


সংযুক্তি


সংযুক্তি (একাধিক)



Share with :

Facebook Twitter